কেন MRT পাস কালো তালিকাভুক্ত করা হয়, এটি ফেরত পেতে কত সময় লাগে

কেন MRT পাস কালো তালিকাভুক্ত করা হয়, এটি ফেরত পেতে কত সময় লাগে
Rate this post

আড়াই মাস পেরিয়ে গেলেও পাস ফেরত না পাওয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করে মীর মফরাদ হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, “যখনই আমি আমার কার্ডের জন্য স্টেশনে যাই, তারা (মেট্রো রেলের কর্মকর্তারা) বলে তাদের কাছে কোনো আপডেট নেই। . তারা বলতে থাকে যে কাজটি হয়ে গেলে তারা আমাকে জানাবে। তারা জানান, কার্ডের মূল্য হিসেবে নেওয়া ২০০ টাকা থেকে ৫০ টাকা সার্ভিস চার্জ কেটে নেওয়া হবে এবং বাকি ১৫০ টাকা ফেরত দেওয়া হবে। যাইহোক, আমার আগের কার্ডে যে ব্যালেন্স ছিল তা আমি পাব না। এটা কিভাবে হতে পারে? ব্যালেন্স যতই থাকুক না কেন, আমি পাব না কেন?”

তার MRT পাস ফিরে পেতে ব্যর্থ, Mofrad এখন আপাতত দ্রুত পাস জারি করেছে। তিনি কয়েকটি বাস পরিষেবা এবং মেট্রো রেলে যাতায়াত করতে পারবেন। এ নিয়ে তিনি কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের (ক্যাব) কাছে অভিযোগও করেছেন।

দ্রুত ট্রানজিট সুবিধার জন্য মেট্রো রেল পরিষেবা শুরু থেকেই শহরবাসীদের মধ্যে জনপ্রিয়। মীর মফরাদ এবং অন্যদের মতো যাত্রীরা পরিষেবার মান বজায় রাখতে এই জাতীয় সমস্যার অবিলম্বে সমাধান আশা করেন।

*এই প্রতিবেদনটি প্রথম আলোর প্রিন্ট এবং অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত হয়েছে এবং আশীষ বসু ইংরেজিতে পুনরায় লিখেছেন

source

Comments

No comments yet. Why don’t you start the discussion?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *